Kolkata Rains News Update: প্রবল বৃষ্টিতে শহরের রাস্তা যেন নদী, বেহালা থেকে বালিগঞ্জ-পার্কস্ট্রিট থেকে পাতিপুকুর, শুধু জল আর জল, ট্রেন-বিমান চলাচলে বিঘ্ন
জলমগ্ন কলকাতা। (Photo Credits: ANI)

কলকাতা, ১৭ অগাস্ট: Kolkata Waterlogging: প্রবল বৃষ্টিতে জলমগ্ন কলকাতা (Kolkata)। গতকাল দুপুর থেকে সন্ধ্যা টানা বৃষ্টির পর, আজ শনিবারও দফায় দফায় চলছে বৃষ্টি। আর তাতেই তিলোত্তমা শহরের অবস্থা নাজেহাল। আজ, শনিবার হওয়ায় শহরের ব্যস্ততা কিছু কম। তবে যারা অনেক কষ্টে বাড়ি থেকে বের হয়েছেন, তারা বুঝছেন নাজেহাল দশা কাকে বলে। বিভিন্ন জায়গায় জল জমার কারণে ট্রেনের গতি কম। দমদম বিমানবন্দরে রানওয়েতে জল জমায় বিমান চলাচলে দেরি হচ্ছে।

দক্ষিণ কলকাতায় একাধিক জায়গায় জমে জল। বেহালায় এবারও রেকর্ড জল জমল। বেহালার ১২৯ নম্বর ওয়ার্ড প্রায় অনেকটাই জলের তলায়। ঘূর্ণাবর্ত-অক্ষরেখার সৌজন্যে শুক্রবারের মত শনিবারও বিক্ষিপ্তভাবে ভারী বৃষ্টিতে ভাসতে চলেছে রাজ্য এমন কথাই জানিয়েছিল হাওয়া অফিস। সকাল থেকেই শহরের বিভিন্ন জায়গায় শুরু হয় বৃষ্টি।

বালিগঞ্জ, রাসবিহারির মতো এলাকায় রাস্তায় জল দাঁড়িয়ে পড়েছে। উত্তর কলকাতার শ্যামবাজার, মানিকতলা, আমহার্স্ট স্ট্রিট, সুকিয়া স্ট্রিট, পাতিপুকুর আন্ডারপাস, উল্টোডাঙা আন্ডারপাস, মধ্য কলকাতার সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউ, ঠনঠনিয়া কালীবাড়ি, কলেজ স্ট্রিট, দক্ষিণে পার্ক সার্কাস সেভেন পয়েন্টও জল দাঁড়িয়ে।

শুক্রবারের বৃষ্টিতেই জল জমে গিয়েছিল তারাতলা, খিদিরপুর, ঠনঠনিয়া, তারাতলায়। আজও প্রায় একই অবস্থা ওইসব এলাকায়।

প্রবল বৃষ্টির কারণে দমদম বিমানবন্দরে বিমান ওঠানামায় সমস্যা হচ্ছে। নির্ধারিত সময়ে নামতে পারেনি ব্যাঙ্কক ও দিল্লি থেকে আসা ৩টি বিমান।

কলকাতা থেকে দিল্লির উড়ানেও দেরি হচ্ছে বলে জানা যাচ্ছে। গতকাল বেলা তিনটে থেকে সন্ধে পর্যন্ত ব্যাপক বৃষ্টি হয়। গতকাল দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত মোট ৯৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়। যা গোটা জুন মাসেও গোটা শহরে হয়নি। ভিক্টোরিয়ার সামনে বজ্রপাতে মৃত্যু থেকে গাড়ির ওপর গাছ পড়ে যাওয়া। অফিস ফেরত মানুষের বাড়ি ফিরতে চরম হয়রানি। বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত ঘটনাবহুল দিনের সাক্ষী থেকেছে মহানগর।