Mohammed Shami: মোহালিতে আগুন ঝরিয়ে শামির পাঁচ উইকেট, শেষবেলায় ভাল খেলে অজিদের ২৭৬ রান
Mohammed Shami. (Photo Credits: X)

মহম্মদ সিরাজের পর এবার মহম্মদ শামি। কলম্বোর পর এবার মোহালি। প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কার পর এবার অস্ট্রেলিয়া। আরও একবার বাইশ গজে আগুন ঝরালেন ভারতীয় পেসার। এশিয়া কাপের ফাইনালে মহম্মদ সিরাজের পর এবার বিপক্ষ ব্যাটারদের কাছে ত্রাস হয়ে উঠলেন ভারতের তারকা পেসার মহম্মদ সামি। দীর্ঘ ১৬ বছর পর প্রথম ভারতীয় পেসার হিসেবে দেশের মাটিতে ওয়ানডে ক্রিকেটে পাঁচ উইকেট নেওয়ার নজির গড়লেন শামি। মোহালিতে আগুন ঝরিয়ে ৫১ রান দিয়ে ৫ উইকেট নিলেন সামি। সামির আগুনে স্পেলে ঝলসে আউট হন মিচেল মার্শ (৪), স্টিভ স্মিথ (৪১), মার্কস স্টোয়নিস (২৯), ম্যাথু শর্ট (২) ও সিন অ্যাবট (২)। ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজের ৯৩ তম ম্য়াচে খেলতে নামা শামির এটি দ্বিতীয়বার পাঁচ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড।

তবু লড়ার মত রান করল অস্ট্রেলিয়া। ডেভিড ওয়ার্নার (৫২)-র দুরন্ত হাফ সেঞ্চুরি, ম্যাথু হেডের চোটের কারণে সুযোগ পাওয়া উইকেটকিপার-ব্যাটার জোশ ইংলিশ (৪৫)-এর ভাল ব্যাটিং, আর শেষের দিকে স্টোয়নিস (২১ বলে ২৯) ও অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের (৯ বলে ২১ রান অপরাজিত) ঝড়ো ইনিংস অস্ট্রেলিয়ার রানকে ২৭৬-এ নিয়ে গেল। বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্য়াচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম খেলায় জিততে ভারতকে নির্ধারিত ৫০ ওভারে করতে হবে ২৭৭ রান। অধিনায়ক রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিদের মত তারকাদের অনুপস্থিতে লোকেশ রাহুলের নেতৃত্বে খেলা টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটাররা অজিদের এই রান তাড়া করে জিততে পারে কি না সেটাই দেখার। রান তাড়া করায় বিশেষ নজর থাকবে ইশান কিষাণ, শ্রেয়স আইয়ার, সূর্যকুমার যাদব ও লোকেশ রাহুলের দিকে। মোহালিতে জিতলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তিনটি ফর্ম্যাটেই এক নম্বরে থাকার নজির গড়বে টিম ইন্ডিয়া। প্রসঙ্গত, ভারত এখন আইসিসি ব়্য়াঙ্কিংয়ে টেস্ট ও টি-২০-তে শীর্ষস্থানে আছে। আর ওয়ানডে-তে আছে দুই নম্বরে। আরও পড়ুন-বিশ্বকাপ জয়ীর ঝুলিতে ৩৩ কোটি টাকা! জানুন প্রাইজ মূল্যের সম্পূর্ণ তালিকা

স্মিথকে যে ডেলিভারিতে বোল্ড করলেন বাংলার পেসার, তাতে তাঁকে বিশ্বকাপে প্রথম একাদশে জায়গা না দিলে অন্যায় করা হবে। শামির কাছে ফিকে দেখালো বুমরার (১/৪৩) ভাল স্পেলটাও। শামি পাঁচ উইকেটে পাশাপাশি একটি মেডেন ওভারও কেরন। বুমরা করেন ২টি মেডেন ওভার। দীর্ঘদিন পর ওয়ানডে-তে খেলতে নেমে ভাল করলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ১০ ওভারে ৪৩ রান দিয়ে মার্নাস লাবুসচানের উইকেট নেন অশ্বিন। সহ অধিনায়ক হিসেবে খেলা জাদেজা ৫১ একটি উইকেট নেন। শার্দুল একেবারে খারাপ বল করে ১০ ওভারে ৭৮ রান দিয়ে কোনও উইকেট পাননি।