Bangladesh Cricket: ২০২৩ একদিবসীয় বিশ্বকাপের আগে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে বাংলাদেশ ক্রিকেট
Bangladesh ODI Team 2023 (Photo Credit: Bangladesh Cricket/ Twitter)

ভারতে অনুষ্ঠিতব্য ২০২৩ আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাঁধার সমাধান বের করার চেষ্টা করছে। সদ্যসমাপ্ত আইসিসি ক্রিকেট বিশ্বকাপ সুপার লিগে ১৫৫ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ, ইংল্যান্ড দ্বিতীয় স্থানে থাকলেও নেট রান রেটে পিছিয়ে পড়ে।আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে সাম্প্রতিক সাফল্যের পর ৫০ ওভারের ফরম্যাটে গতি আছে টাইগারদের। ঘরের মাঠের মতো পরিবেশে বিশ্বকাপে বাংলাদেশ প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বেশ ভালো। ঘরের মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে অল-ফরম্যাট সফরে মাঠে নামতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এই সফরে তিনটি একদিবসীয় ম্যাচের সিরিজ খেলবে তারা। আগামী সেপ্টেম্বরে এশিয়া কাপও তাদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ কারণ এটি দেখা হবে বিশ্বকাপের রিহার্সাল হিসেবে।

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেছেন, 'আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে ও মে মাসে একদিবসীয় সিরিজ থেকে বাদ পড়া মাহমুদউল্লাহকে দলে নেওয়া হয়েছে। আমরা যদি পাঁচ বোলার নিয়ে খেলতে চাই, তাহলে আমরা অতিরিক্ত ব্যাটসম্যান নামাবো। এই মুহূর্তে দলে রয়েছেন ইয়াসির আলি। আফিফ হোসেন, মাহমুদউল্লাহ ও মোসাদ্দেকের মতো ক্রিকেটাররা দলে নেই। পাঁচ বোলার খেলানোর ক্ষেত্রে আমাদের একজন অলরাউন্ডার দরকার হবে। শেষ পর্যন্ত নানুর [আবেদিন] কী করবে জানি না, আমি শুধু নিজে থেকে বলছি।'

তিনি আরও যোগ করেন, 'যিনি একাদশে খেলবেন, তিনি যে দলে থাকবেন, তার কোনও গ্যারান্টি নেই। ব্যাটিংয়ের জন্য দলে জায়গা করে নিতে পারেন আফিফ-মাহমুদউল্লাহরা। চোট কাটিয়ে ফেরার পর ইয়াসির খুব বেশি কিছু করেনি। বোলিংয়ে আফিফ ও মোসাদ্দেক যেমন এগিয়ে, মাহমুদউল্লাহও তেমনি। মোসাদ্দেক ও রিয়াদকে অনুসরণ করে আফিফই সেরা ফিল্ডার।'

বিশ্বকাপের জন্য সম্ভাব্য বোলিং অপশন ও কম্বিনেশন নিয়েও মুখ খুলেছেন নাজমুল হাসান। তিনি বলেছেন, 'তিন-চারটি ফাস্ট বোলিং অপশন নিয়ে বাংলাদেশ পেস-হেভি হতে পারে। তাই হাসান মাহমুদ, তাসকিন আহমেদ, শোরিফুল ইসলাম, ইবাদত হোসেন ও মুস্তাফিজুর রহমানের মধ্যে যে কোনো তিনজনকে খেলানো হতে পারে। বিশ্বকাপে পাঁচ বোলারের কম কিছু খেলার সম্ভাবনা তাদের নেই বললেই চলে। তারা হয়তো চার পেসারকেও দলে নিতে পারে। ওদের একজন অতিরিক্ত স্পিনারও দরকার।