Fact Check: সরকারের নজরে  আপনার Facebook, Twitter! রেকর্ড হচ্ছে Whatsapp মেসেজ?
এই সেই পোস্ট (Photo Credits: Social Media)

দেশজুড়ে একটা বিষয় ভাইরাল হয়েছে যে যদি কেন্দ্রের নতুন তথ্য প্রযুক্তি আইন না মানলে ভারতে নিষিদ্ধ হতে চলেছে টুইটার ও ফেসবুকের মতো জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম৷ একটি মেসেজ প্রায় সকলের হোয়াটসঅ্যাপে ঘুরছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে Whatsapp-এর যাবতীয় ভিডিও এবং ভয়েস কল রেকর্ড করবে কেন্দ্র৷ রাজনীতি, ধর্ম, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি ও প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কোনও বক্তব্য থাকলেই কোনওরকম ওয়ারেন্ট ছাড়া গ্রেপ্তার হবেন সেই ব্যক্তি৷ ভাইরাল মেসেজের দাবি আজ থেকেই কেন্দ্রের এই নয়া তথ্য প্রযুক্তি আইন বলবৎ হচ্ছে৷ সমস্ত কল রেকর্ড সেভ করা হবে৷ ইউজারের হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম কেন্দ্রের নজরদারিত্বে চলে আসবে৷ মন্ত্রকের সঙ্গে ইউজারের ফোন কানেক্ট থাকবে৷  আরও পড়ুন-Gaurav Sharma Arrested: হাইড্রোজেন বেলুনের সঙ্গে পোষ্যকে বেঁধে উড়িয়ে গ্রেপ্তার ইউটিউবার, দেখুন ভিডিও

সাবাধানবাণীতে বলা হয়েছে, বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কোনও বক্তব্য, ভিডিও একদম পোস্ট করবেন না৷ কাউকে শেয়ারও করবেন না৷ যদি করে থাকেন তাহলে গ্রেপ্তারির আওতায় চলে আসতে পারেন৷ পুলিশ নোটিস জারি করে সাইবার অপরাধ মামলায় ইউজারের নাম নথিভুক্ত করবে৷ যা নিঃসন্দেহে দয়া করে বিষয়টি নিয়ে সবাই সতর্ক থাকুন৷ যদি আপনার পাঠানো এহেন মেসেজে তিনটে টিক পড়ে তাহলে বুঝবেন সরকার পক্ষ খবর পেয়ে গেছে৷ যদি দুটো নীল রঙের টিক ও একটি লাল রঙের টিক পড়ে তাহলে সরকার আপনার বিরুদ্ধে সক্রিয়৷ যদি দুটি নীল টিকের সঙ্গে দুটি লাল টিকও থাকে তাহলে আপনার তথ্য যাচাই করছে সরকার৷ যদি দেখেন মেসেজটিতে তিনটি লাল টিক হয়েছে, তাহলে সরকার আপনার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেওয়া শুরু করেছে৷ খুব শিগগির কোর্ট আপনাকে তলব করবে৷

এই মেসেজ ভাইরাল হতেই জনমনে আতঙ্ক ছড়ায়৷ তবে লেটেস্টলি মিডিয়া তথ্য যাচাই করে জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ গাইডলাইনটি ভুয়ো৷ সরকারি তরফে এমন কোনও তথ্য প্রযুক্তি আইন বলবৎ হয়নি৷ ফেসবুকের মাধ্যমে এই মেসেজকে ভুয়ো বলে দাবি করেছে পিআইবি৷ এমন কোনও ঘোষণা ভারত সরকার করেনি৷ এরকমই ভুয়ো এক বার্তা হিন্দিতে ভাইরাল হয়েছিল চলতি বছরের জানুয়ারিতে৷ যেহেতু Whatsapp মেসেজ এখনও প্রেরক ও প্রাপকের মধ্যে সীমাবদ্ধ অর্থাৎ এন্ড টু এন্ড ইনক্রিপ্টেড, তাই বাইরের কেউ সেই মেসেজ দেখতে পারে না৷   এমনকী Whatsapp নিজেও নয়৷ সেজন্য আপনার Whatsapp কল, ভিডিও মেসেজ রেকর্ড হচ্ছে, এমন ভাবার কোনও কারণ নেই৷