নীল জলরাশির হাতছানিতে বঙ্গ ললনার বিকিনি বিলাস
প্রতীকী ছবি(Photo credit: Wikimedia commons)

বাঙালিরা বিকিনি সুন্দরীদের লুকিয়ে দেখতেই বেশি পছন্দ করে।স্মার্টফোনের সৌজন্যে লুকোছাপার পরিমাণ বেশ বেড়েছে।ইউটিউবেও বিকিনি সুন্দরীদের(Bikini beauty) দেখছেন বাঙালি তরুণ।কিন্তু হানিমুনে বউকে গোয়ায় নিয়ে গেলেও খুব বেশি হলে হট প্যান্টের সঙ্গে স্প্যাগেটি টপ।তার উপরে ভাবাটাই ছিল অশালীনতা।হোটেলের প্রাইভেট পুলে সুইমসুট পরিহিতা স্ত্রীকে দেখেই নব্য বর তখন ভিরমি খেলেন বলে।সেই ছবি যাতে আধুনিকা বউ কোনওভাবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় না দিতে পারেন তানিয়ে কতই না কসরত চলে।একান্নবর্তী পরিবারে দীঘা(Digha) পুরী(Puri) দার্জিলিং(Darjeeling) চলতে পারে সেখানে গোয়া শুনেই সবাই আড়চোখে দেখছিল, এবার সুইমসুটে নতুন বউকে দেখলে কেলেঙ্কারির শেষ থাকবে না।দূর সুইমসুট পরতে ভারি বয়ে গেছে রিয়ার(Riya)।সেতো ঠিক করেছে পাটায়ার সেক্সি সৈকতে জয়পুরি প্রিন্টের বিকিনি পরবে।ওই যে গতমাসে শপিংমলে ডিনারে গিয়ে কিনল।প্রায় বছর খানেক পর কলকাতা থেকে বাইরে পা রাখার ফুরসৎ মিলেছে।চারসখি একসঙ্গে পাটায়া বিচে রাজ করবে এমন স্বপ্ন সফল হতে আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা বাকি।আইটি প্রফেশনাল রিয়ার বেস্টি হল নিধি, সে একটি মাল্টি ন্যাশনাল কম্পানির ম্যানেজার, চাইলেই তো আর মন্দারমণিতে গিয়ে হইহই করতে পারে না। কোথায় তার অধঃস্তন কর্মচারী বউকে নিয়ে ছুটি কাটাচ্ছে তার ঠিক নেই।পৃথা(Pritha) তো ওয়াইল্ড লাইফ ফোটোগ্রাফার, ওর ব্যাপারই আলাদা।তবে এই ট্রিপের জন্য সেদিন নিউমার্কেট থেকে যে বেবি পিংকের বিকিনিটা কিনল, তাতে রিয়ার চোখ আটকে আছে।একদিন পৃথার থেকে শেয়ার করে পরেও নেবে।এদিকে জুয়েলারি ডিজাইনার রাহিকে(Rahi) নিয়ে বেশ উত্তেজিত তিনজন।রাহির এটা শেষ ব্যাচেলরট্রিপ, তাই মধ্যমণি ওই।বিমান আকাশ ছুঁতেই চার বন্ধু আনন্দে চিৎকার করে ওঠে।সহযাত্রীরা আলট্রা মর্ডান তরুণীদের উৎসাহ উপভোগ করতে করতেই থাইল্যান্ডে(Thailand)পৌঁছে গেলেন।

আধুনিক সমাজের সবচেয়ে জোরালো রিংটোন হল- আমি নিজের ইচ্ছেমতো বাঁচব। তাতে তোমার কী মনে হল, আই জাস্ট ডোন্ট কেয়ার।বিকিনি পরে ট্রোলড হয়ে দীপিকা পাড়ুকোন যদি জোরদার পাল্টা দিতে পারেন, তাহলে আমি-আপনি কেন স্লাট শেমিংয়ের ভয়ে গুটিয়ে থাকব? জিমে গিয়ে ঘাম ঝরিয়ে যে ফাটাফাটি ফিগারটা বানিয়েছেন, সেটাকে কেন জিনস আর টপের তাঁবুতে লুকিয়ে রাখবেন?বালিগঞ্জের বাবলি যদি বিকিনি পরা নিয়ে কিন্তু-কিন্তু করেও, তাকে সাহস জোগাতে তৈরি মায়ামির মারিয়া। সহানুভূতি আর উৎসাহ স্রেফ একটা ক্লিক দূরে।বাঙালি শরীরের গড়ন সাধারণত একটু ভারীর দিকে। তাই হেভি বাস্ট বা ভারী নিতম্বকে হার্ডল না ভেবে ভালবাসুন। ফোটোশপ করা ম্যাগাজিন কভার গার্ল নয়, মাথায় রাখুন গ্রিক সুন্দরীদের স্ট্যাচু। তবে মনে রাখবেন কোন ধরনের বিকিনিতে আপনি মোহময়ী হয়ে উঠবেন, তা নিজেকেই ঠিক করতে হবে।

সবথেকে পপুলার রিসর্টওয়্যার হল বিকিনি। মনোকিনিও রয়েছে। তবে, মনোকিনি ওয়ান পিস হয়।রয়েছে লিও টার্ড। এটা সামনে ব্যাকলেস আর সাইড থেকে বাঁধা।খুব ইচ্ছে হল আর বিকিনি পরলেন, তা না করে দেখুন বিকিনিতে আপনি কতটা কমফর্ট ফিল করছেন।বিকিনির সঙ্গে শিয়ার লেয়ারিং করাতে পারেন। লং শার্ট বা জ্যাকেটও পরতে পারেন। যখন পুলে থাকছেন না, তখন বিকিনির ওপর শার্ট বা লং জ্যাকেট পরে নিন।যে কোনও রিসর্টওয়্যারে কাফতান এখন ভীষণ পপুলার।রিক্লাইনারে রিল্যাক্স করার সময় বা রিসর্টের আশপাশে ঘোরার সময় বিকিনির ওপর ম্যাক্সি ড্রেসও পরতে পারেন। শর্টস বা হটপ্যান্টও পরতে পারেন।এখন ভীষণ ইন জ্যাকেটের সঙ্গে সরঙ্গ। ডিজিটাল প্রিন্টের সরঙ্গে বেশ ব্রাইট লাগে।রিসর্টওয়্যারের কালার নিয়েও একটু ভাবতে হবে। ব্রাইট কালার যেমন অরেঞ্জ, রেড, অ্যাকোয়ামেরিন এই রংগুলো বাছুন। সি-গ্রিন বা ব্লুও ভাল লাগবে।নাহলে প্যাস্টেল, কোরাল পিঙ্ক, লাইট ব্লুও ভাল লাগবে। রিসর্টওয়্যারের সঙ্গে অ্যাকসেসরিজ মাস্ট। সানগ্লাস সঙ্গে রাখুন। ইয়ার রিং যেন অ্যাক্রিলিকের হয়। এটা ওয়াটার প্রুফ। হালকা মেকআপ, নাহলে শুধুই সানস্ক্রিন, ন্যুড গ্লসি লিপস্টিক, কালার আইলাইনার জাস্ট ফাটাফাটি।