Tripura Shocker: ঝগড়া জেরে মাকে খুন, যুবকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড আগরতলায়
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: Pixabay)

আগরতলা: সরস্বতী পুজোর (Saraswati Puja) সময় বন্ধুদের (friends) সঙ্গে বাইক (bike) নিয়ে ঘুরতে যেতে চেয়েছিল। কিন্তু, রাজি হয়নি মা। এই নিয়ে ঝগড়ার জেরে মাকে পিটিয়ে খুন (murder) করে এক যুবক। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসের ১৬ তারিখে ঘটা ওই নৃশংস ঘটনায় দোষীসাব্যস্ত যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের (Life Imprisonment) আদেশ দিল ত্রিপুরার (Tripura) খোয়াইয়ের (Khowai) জেলা ও সেশন কোর্টের (district and sessions) বিচারক।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসের ১৬ তারিখে আগরতলার (Agartala) বাসিন্দা ২৬ বছরের যুবক মারান দেবনাথ (Maran Debnath) বন্ধুদের সঙ্গে বাইক নিয়ে সরস্বতী পুজোর প্যান্ডেলগুলি ঘুরে দেখতে চেয়েছিল। এই নিয়ে মা ৪৫ বছরের সুনীতি দেবনাথের সঙ্গে তার বচসা শুরু হয়। সুনীতিদেবী তাকে বাইক নিয়ে ঘুরতে যেতে বারণ করেন। কিছুদিন আগে মারান অ্যাক্সিডেন্ট করায় তিনি বোনের সঙ্গে তাকে পায়ে হেঁটে ঠাকুর দেখতে বলেন। বিষয়টি নিয়ে গণ্ডগোলের সময় ওই যুবক একটি লাঠি দিয়ে মা ও বোনকে আঘাত করে। বোন ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও মারানের লাঠির আঘাত অচৈতন্য হয়ে বাড়িতেই লুটিয়ে পড়েন সুনীতিদেবী। সঙ্গে সঙ্গে মারান ও তার পরিবারের সদস্যরা সুনীতিদেবীকে নিয়ে স্থানীয় হাসপাতালে গিয়ে ভর্তি করে। সেখানে তিনদিন চিকিৎসা চলার পর মৃত্যু হয় ওই মহিলার। এই খবর পেতেই মায়ের মৃতদেহ হাসপাতালে ফেলেই পালিয়ে যায় মারান। আরও পড়ুন: Uttar Pradesh Shocker: নৃশংস! আখ চুরির জেরে ব্যক্তিকে পিটিয়ে খুন উত্তরপ্রদেশে

পরে গিয়ে তার বাবা ও সুনীতি দেবীর স্বামী রাজকুমার দেবনাথ থানায় গিয়ে নিজের ছেলের নামে খুনের অভিযোগ দায়ের করেন। পরে পুলিশের কাছে আত্মসমপর্ণ করে মারান। প্রায় এক বছর ধরে সেই মামলা চলার পর আদালত অভিযুক্ত যুবককে দোষীসাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিল।