Maharashtra Government Formation:  অজিত পাওয়ার থাকছেন কি না তা দল ঠিক করবে,  ভাইপোকে নিয়ে মুখ খুললেন এনসিপি প্রধান
শরদ পাওয়ার ও অজিত পাওয়ার (Photo Credit: File Photo)

মুম্বই, ২৫ নভেম্বর: সময় হলেই অজিত পাওয়ারকে (Ajit Pawar) দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। শিবসেনা-এনসিপি-কংগ্রেস জোট সরকার গড়তে চলেছে। এমন শুভ সময়েই অশুভ ছায়া ঘিরে ধরে মহারাষ্ট্রকে। দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রীর পদে শপথ নিচ্ছেন দেবেন্দ্র ফডনবিশ, উপমুখ্যমন্ত্রীর চেয়ারে তখন অজিত পাওয়ার। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই রাজ্যপালের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সোমবার এনসিপি প্রধান শরদ পাওয়ারকে অজিত পাওয়ারের কীর্তি কলাপ নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। দেবেন্দ্র ফডনবিশকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে স্বীকার করে নেওয়া এবং বিজেপি সমর্থন করার জন্য অজিত পাওয়ারকে কি বহিষ্কার করা হবে? তিনি বলেন, এটি একক সিদ্ধান্তে বিষয় নয়, নেতৃত্বের সম্মতিতেই যা হবার হবে।

তবে দেবেন্দ্র ফডনবিশকে খোঁচা দিত ছাড়েননি প্রবীণ এনসিপি নেতা। বলেছেন, মহারাষ্ট্রে বিজেপি ক্ষমতা দখল করলেও টিকতে পারবে না। কেননা বিজেপির সংখ্যা গরিষ্ঠতা এখানে নেই। এমনকী সরকার গঠনের ম্যাজিক ফিগারও বিজেপির ঝুলিতে নেই। যখন বিজেপিকে সরকার গঠনের জন্য ডাকা হয়েছিল, তখন বিজেপি নিজে সেই কাজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছিল। এটা তো বাস্তব যে সরকার গড়ার মতো সংখ্যা গরিষ্ঠতা বিজেপির কাছে নেই। এনিয়ে বিজেপির তরফে রাজ্যপালকে তো চিঠিও দেওয়া হয়েছিল, যে তাদের কাছে সরকার গঠন করার জন্য প্রয়োজনীয় বিধায়ক সংখ্যা নেই। তাই বিজেপি সরকার গঠন প্রক্রিয়া থেকে সরে দাঁড়াচ্ছে। এদিন আরও দুই বিধায়ক ফিরে এল এনসিপির (NCP) শরদ পাওয়ার (Sharad Pawar) শিবিরে। তবে আরও দুই বিধায়ক এখনও নিখোঁজ। ফিরে আসা দুই বিধায়ক হলেন দৌলত দারোদা ও অনিল পাতিল। তাঁরা দু'জনেই বাকি বিধায়কদের সঙ্গে হায়াত হোটেলে উঠেছেন। রবিবার গভীর রাতে তাঁদের নিয়ে মুম্বই ফেরেন এনসিপির ছাত্র সংগঠনের প্রধান সোনিয়া দোহন ও এনসিপির যুব সংগঠনের নেতা ধীরাজ শর্মা। জানা যাচ্ছে, নীতিন পাওয়ার নামে আরও এক বিধায়ক মুম্বই ফিরেছেন। তবে তিনি হায়াত হোটেলে উঠেছেন কি না তা জানা যায়নি। আরও পড়ুন-Maharashtra Government Formation: দেবেন্দ্র ফডনবিশ পদত্যাগ করুন, নাহলে ফের রাজনৈতিক লড়াইয়ের ইঙ্গিত নবাব মালিকের

অজিত পাওয়ারে এই নাটকীয় ভোলবদলে বেশ খানিকটা অবাক শিবসেনা। আচমকা এনসিপি প্রধানর ভাইপো কিনা বিজেপি শিবিরে, তবে সে যাই হোক শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত(Sanjay Raut) সাংবাদিক সম্মেলনে বললেন, একটি মিডিয়া রিপোর্টে তিনি জানতে পেরেছেন রোটেশনাল মুখ্যমন্ত্রীত্বের শর্তে অজিত পাওযার সম্মতি জানিয়েছেন। রাজ্যপালের সমর্থনের আশায় আজ শিবসেনা-এনসিপি ও কংগ্রেসের নেতৃবৃন্দ আজ সোমবার একটি চিঠি নিয়ে রাজভবনে যাচ্ছেন।