Kolkata: স্বচ্ছতার উদ্যোগ, দলীয় বিধায়ক ও সাংসদদের প্যান কার্ডের তথ্য জমার নির্দেশ তৃণমূলের
তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় পতাকা (Photo Credits: Wikipedia)

কলকাতা, ১৫ নভেম্বর: দলীয় বিধায়ক (MLA) ও সাংসদদের (MP) প্যান (PAN) কার্ডের তথ্য জমা দেওয়ার নির্দেশ দিল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)। দলীয় তহবিলে বিধায়ক ও সাংসদদের মাসিক ভাতা থেকে চাঁদা দেওয়ার নিয়ম রয়েছে তৃণমূলে। প্রতি মাসেই দলীয় তহবিলে জমা পড়ে চাঁদা। ২৪ ঘণ্টার খবর অনুযায়ী, সেই প্রক্রিয়ায় এবার স্বচ্ছতা আনতে চাইছে তৃণমূল। ভাবমূর্তি স্বচ্ছ রাখতে চাওয়া হচ্ছে বিধায়ক-সাংসদদের প্যান কার্ডের নথি। তৃণমূল সূত্রে খবর, দলীয় বিধায়ক এবং সাংসদদের প্রত্যেককে তাদের প্যান কার্ডের ফোটোকপি স্বাক্ষরসহ দলের কাছে জমা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, তৃণমূলের পরিষদীয় দল এবং সংসদীয় দল দুই দলেরই পৃথক পৃথক তহবিল রয়েছে। প্রতি মাসে বিধায়কদের ভাতা থেকে ১ হাজার টাকা এবং সাংসদদের ভাতা থেকে ১০ হাজার টাকা করে কেটে সেই তহবিলে জমা হয়। বিধায়কের তহবিল দেখভালের দায়িত্বে রয়েছেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। কলকাতায় স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়ার (State Bank of India) সদর কার্যালয়ে​ পরিষদীয় দলের তহবিলের অ্যাকাউন্টটি রয়েছে বলে সূত্রের খবর। প্রতি মাসে ভাতা থেকে দলকে দেওয়া বিধায়কদের সেই চাঁদার প্রমাণ হিসেবে প্যান কার্ডের নথি জমা করতে বলা হয়েছে দলের তরফে। অন্যদিকে, সাংসদদের কাছেও একই নথি চেয়েছে দল।

জানা যাচ্ছে, প্রতি মাসেই সাংসদ বিধায়করা দলীয় তহবিলে টাকা দিয়ে থাকেন। নির্বাচন থাকলে ভোটের মাসের আগে এক মাসের পুরো ভাতাই বিধায়ক এবং সাংসদদের দলীয় তহবিলে জমা করার নির্দেশ দেওয়া রয়েছে। যা নিয়ম করে পালন করা হয়। তাহলে হঠাৎ কেন প্যান কার্ড জমা করার প্রয়োজনীয়তা পড়ল? এ প্রশ্নে মুখ খুলতে নারাজ তৃণমূল নেতৃত্ব। একটি সূত্র বলছে, ব্যাঙ্কের প্রয়োজন। দলীয় তহবিলের জমা টাকার ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা রাখতেই এই পদক্ষেপ করেছে দল। দলের এক মন্ত্রী বলেন, "একাধিক সময় দলের তহবিল নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার নজর রয়েছে দলীয় তহবিলে। সেই জায়গা থেকে স্বচ্ছতা রাখতেই এই পদক্ষেপ। সতর্ক থাকা যাতে কেউ আঙুল তুলতে না পারে।" আরও পড়ুন: Kolkata SFI Wins Student Election: ৯ বছর পর প্রেসিডেন্সিতে লাল আবীর, ছাত্র সংসদে জয়ী এসএফআই

তবে কি ইডির চাপেই এই পদক্ষেপ করতে হয়েছে তৃণমূলকে? এমন প্রশ্নও উঠছে দলের অন্দরেই। বিধায়ক এবং সাংসদদের থেকে তৃণমূলের এই 'প্রাপ্তি'তে ইডির নজর পড়েছে বলেই সূত্রের খবর। ফলে সেই টাকা কোন কোন বিধায়ক দিচ্ছেন, তাদের আয়ের উৎস কি, সবকিছু বিস্তারিত জানতে পার্সোনাল অ্যাকাউন্ট নম্বর বা প্যান কার্ডের প্রয়োজন। সেই কারণেই প্যান কার্ডের ফটোকপি জমা করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বিধায়ক-সাংসদদের। ২০২০ পুরভোট এবং ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনের আগে দলীয় তহবিলে নিয়ে সতর্ক থাকতে চাইছে মমতা ব্যানার্জির (Mamata Banerjee) দল। তহবিলের ক্ষেত্রে যেন স্বচ্ছতা থাকে চাইছে তৃণমূল সুপ্রিমো।