JP Nadda Attacks Mamata Banerjee: আম্ফান দুর্নীতির অডিটে আপত্তি, মমতা দিদি এত ডর কেন? তোপ দাগলেন জেপি নাড্ডা
জেপি নাড্ডা (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ২৫ ফেব্রুয়ারি: ফের একদিনের সফরে রাজ্যে এসেছেন বিজেপির সর্বভারতী সভাপতি জেপি নাড্ডা (JP Nadda)। আজ তিনি নৈহাটিতে বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে যাবেন। তারপর গৌরীপুরে এক চটকল শ্রমিকের বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজ সেরে বারাকপুরে যাবেন। তবে সকালে হেস্টিংসের দলীয় কার্যালয় থেকে ফের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানালেন তিনি। 'লক্ষ্য সোনার বাংলা' পুস্তিকা প্রকাশ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, “কাটমানি, তোলাবজি থেকে বাংলাকে রক্ষা করতে হবে। কয়লা পাচার বন্ধ করা হবে। কাটমানি থেকে বাঁচিয়েই বাংলার উন্নয়ন করা হবে। আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য প্রধানমন্ত্রী সাহায্য করেছেন। সেই টাকা ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে পৌঁছায়নি। যে আনাজ পাঠানো হয়েছে, তা মিলেছে তৃণমূল কর্মীদের ঘরে। আম্ফানের টাকার অডিট করতে মমতার এত আপত্তি কেন?” আরও পড়ুন-Arjun Singh On Poriborton Yatra: বারাকপুরে বিজেপির পরিবর্তন যাত্রায় পুলিশের না, টুইটে আদালতে যাওয়ার বার্তা অর্জুন সিংয়ের

তিনি আরও বলেন-

  • LED রথের উদ্বোধন করছি আজকে। যা প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে থাকবে। সেখানে ডিজিটালি বোঝানো হবে।
  • পাশাপাশি থাকবে মিস কল নম্বর ৯৮২৭২৯৪২৯৪। যেখানে মিস কল দিয়ে আপনি সাজেশন দিতে পারবেন।
  • ৩ থেকে ২০ মার্চ পর্যন্ত থাকবে এই LED রথের যাত্রা ও সাজেশন বক্স।
  • ৩০ হাজার সাজেশন বক্স থাকবে গোটা বাংলায়। আমাদের লোকেরা বাড়ি পর্যন্ত নিয়ে যাবে সেই সাজেশন বক্স নিয়ে যাবে।
  • পাশাপাশি ২৯৪ বিধানসভার বিভিন্ন কার্যালয়ে রাখা থাকবে ওই সাজেশন বক্স।
  • ২ কোটিরও বেশি মানুষের সাজেশন নিতে চাই আমরা।
  • বিজেপির লক্ষ্য সোনার বাংলা, সেকারণেই এই কর্মসূচি।
  • আমরা সাধারণ মানুষের মতামত নেব।
  • মতুয়া এবং নম শুদ্রদের জন্য একাধিক ব্যবস্থা করব।
  • বাংলাকে দুর্নীতি মুক্ত করতে হবে।
  • সিন্ডিকেট সংস্কৃতিকে থামাব। কাটমানি বন্ধ হবে।
  • আয়ুষ্মান ভারত চালু করা হবে।
  • সপ্তম পে কমিশন চালু করব। যাতে এমপ্লয়িরা সুবিধা পায়।
  • ১ কোটি ৪০ লক্ষ শৌচাগার তৈরি হয়েছে বাংলায়।
  • ১ কোটি ৯২ লক্ষ মানুষ জনধন খাতা খুলেছে।
  • স্বাধীনতার এত বছর পরও কেন মৌলিক আবশ্যকতার জন্য বাংলাকে লড়াই করতে হচ্ছে?
  • কেন্দ্রের ত্রাণ তৃণমূল নেতাদের ঘরে গিয়েছে।
  • আম্ফান দুর্নীতি নিয়ে অডিট করতে বলেছিল কোর্ট। রাজ্য তার বিরোধিতা করেছে।
  • বর্তমানে বাংলায় শিল্পের আকাল চলছে।
  • কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রককে অন্ধকারে রেখেছে রাজ্য।
  • করোনার সময় কেন্দ্রীয় দলকে আটকে রাখা হয়েছে। রিপোর্ট দেওয়া হয়নি।
  • বাংলায় ডেঙ্গি হল, চিকিৎসকদের হুমকি দিয়ে রিপোর্ট আটকেছেন দিদি।
  • মমতা দিদি এত ডর কেন?

এদিকে পরিবর্তন যাত্রার অনুমতি দেয়নি পুলিশ। অন্যপথে পরিবর্তন যাত্রা সরানোর চেষ্টায় আলোচনা চলছে। গোটা ঘটনায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিং। বলেছেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যের নির্দেশেই পুলিশ পরিবর্তন যাত্রা স্থগিত করে দিয়েছে।