Mann ki Baat: এক পৃথিবী, এক পরিবার, এক ভবিষ্যতের দিকে এগিয়ে যাবে ভারত, বলছেন মোদি
মন কি বাতে নরেন্দ্র মোদি (Photo Credits: ANI/Twitter)

নয়াদিল্লি: এক পৃথিবী, এক পরিবার ও এক ভবিষ্যতের (One Earth, One Family, One Future) দিকে এগিয়ে যাবে ভারত (India)। সেটাই লক্ষ্য সরকারের। রবিবার 'মন কি বাত'  (Mann ki Baat) অনুষ্ঠানে নিজের মনের কথা বলতে গিয়ে এটাই পরিষ্কার করে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Prime Minister Narendra Modi)। বিশ্ববাসীকে বার্তা দিলেন সৌ-ভ্রাতৃত্বের।

জি২০ দেশগুলির সভাপতির (G20 presidency) পদে আসীন হওয়ার বিষয়টি ভারতের জন্য গর্বের বলে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, "জি২০ গোষ্ঠীর সভাপতির পদ আমাদের কাছে একটি সুযোগ (opportunity)। আমাদের লক্ষ্য হতে হবে বিশ্বের ভালো করা (global good), সেটা  শান্তি (peace), ঐক্য (unity) বা উন্নয়নের স্থিতিশীলতা (sustainable development) বজায় রাখার মধ্যে দিয়ে সম্ভব হবে। এর পথে যদি কোনও সমস্যা আসে তাহলে তার সমাধান খুঁজে বের করতে হবে ভারতকে। এই কারণে আমরা 'এক পৃথিবী, এক পরিবার, এক ভবিষ্যত'-এর থিম দিয়েছি।"

ভারতের মানুষও যে বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশগুলি নিয়ে তৈরি জি২০ গোষ্ঠীর সভাপতি হতে পেরে গর্বিত হয়ে তাঁকে চিঠি লিখেছেন, রবিবার তা জানান নরেন্দ্র মোদি। বলেন, "দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মানুষ আমাকে চিঠি লিখে তাঁদের অনুভূতির কথা জানিয়েছেন। অমৃত কাল (Amrit Kaal) চলার সময়ে ভারত জি২০-এর সভাপতির দায়িত্ব পেয়েছে বলে তাঁরা কতটা গর্বিত হয়েছেন তা ব্যক্ত করেছেন।"

৯৫তম মন কি বাত অনুষ্ঠানে কথা বলতে গিয়ে এই অনুষ্ঠানটি তার শততম ইনিংসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলেও উল্লেখ করে তিনি। এপ্রসঙ্গে বলেন, "আমরা মন কি বাতের ১০০তম এপিসোডের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। ভারতের মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য এটি আমার কাছে একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠান।"

গতকাল ভুটানের (Bhutan) সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে একটি কৃত্রিম উপগ্রহ (satellite) উৎক্ষেপণ করেছে ভারত। এই কথা উল্লেখ করে নরেন্দ্র মোদি বলেন, "গতকাল ভারত ভুটানের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে তৈরি কৃত্রিম উপগ্রহ উৎক্ষেপণ করেছে। এটি খুব উচ্চমানের ছবি পাঠাবে যা ভুটানকে সাহায্য করবে। উপগ্রহ উৎক্ষেপণের এই ঘটনা ভারত ও ভুটানের দৃঢ় সম্পর্কের (strong relations) একটি প্রতীক। এর আগে গত ১৮ নভেম্বর বিক্রম এস (Vikram S) নামে একটি রকেট উৎক্ষেপণের মধ্যে দিয়ে মহাকাশের ময়দানে (space sector) গুরুত্বপূর্ণ সাফল্য পেয়েছে ভারত। বেসরকারিভাবে তৈরি এই রকেটটিতে অনেক নতুন ফিচারও রয়েছে।"