Alwar Gangrape Case: স্বামীর সামনে দলিত তরুণীর গণধর্ষণের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত ৫ জনই, যাবজ্জীবন কারাদন্ড ৪ অভিযুক্তের
Say No to Sexual Assault. (Photo Credits: File Image)

আলওয়ার, ৬ অক্টোবর: ১৯ বছরের দলিত তরুণীর (19 year Old Dalit Girl Gang Rape) গণধর্ষণ কাণ্ডে জড়িত ৫ জনকেই দোষী সাব্যস্ত করল আলওয়ার আদালত (Alwar Court)। তপসিলি/তফসিলি জাতি/ উপজাতি আইনের (SC/ST Act) অধীনে বিশেষ আদালত সাজা ঘোষণা করে অভিযুক্তদের। ২০১৯-র ঘটনায় মোট ৫ অভিযুক্তের মধ্যে রয়েছে ১ নাবালকও। অভিযুক্তদের মধ্যে ৫ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং বাকি ১ জনকে ৪ বছরের জন্য কারাদণ্ডের নির্দেশ দিয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১৯-র ২৬ এপ্রিল। রাজস্থানের আলওয়ারে থানাগাজি পুলিশ স্টেশনে। ২ মে থানায় এফআইআর দায়ের করে দলিত তরুণীর পরিবার। এফআইআর দায়ের করার ১৬ দিন পর ১৮ মে পুলিশ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে চার্জশিট পেশ করে। স্বামীর সামনেই মেয়েটিকে গণধর্ষণ করে ৫ জন। এই ৫ অভিযুক্তের মধ্যেই ১ জন নাবালক ছিল বলে জানা গিয়েছে। গণধর্ষণের ঘটনাটি পুরো ক্যামেরায় বন্দি করে এক অভিযুক্ত। ১০ হাজার টাকা না দিলে সেই ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেওয়া হবে বলে হুমকি দেওয়া হয়। কিন্তু ওই দলিত পরিবার টাকা যোগাড় করতে না পারায় গণধর্ষণের ভিডিওটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়া হলে তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়।

চার অভিযুক্ত- ইন্দ্রজিৎ গুর্জর, অশোক, মুকেশ এবং মাহেশ গুর্জরের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৪৭ (দাঙ্গাবাজি), ১৪৯ (বেআইনি জমায়েত), ৩৫৪ বি (মহিলার সম্ভ্রমহানি করা) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই তা নিয়ে শোরগোল পড়ে যায় গোটা দুনিয়ায়। রাজস্থান সরকার আলওয়ার সুপারিনটেনডেন্টকে বরখাস্ত করে এবং থানাগাজি, যে এলাকা থেকে ঢিলছোঁড়া দূরত্বে ঘটনাটি ঘটে সেই এলাকার পুলিশ স্টেশনের এসএইচও সর্দার সিংকে বরখাস্ত করে রাজ্য সরকার।