Delhi: ধর্ষণের শিকার ১২ বছরের কিশোরী, পরিস্থিতি এখনও সংকটজনক, নিউরোসার্জারি ICU-তে চলছে চিকিৎসা
AIIMS in Delhi (Photo Credits: IANS)

নয়াদিল্লি, ৭ অগাস্ট: দিল্লির পশ্চিম বিহার এলাকায় ১২ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ। এইমসে চিকিৎসাধীন কিশোরী। এখনও কিশোরীর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। এএনআই সূত্রে এমনটাই খবর। নিউরোসার্জারি ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (ICU)-তে স্থানান্তরিত করা হয়েছে তাকে। সেখানেই চলছে চিকিৎসা। ৪ অগাস্ট ঘটেছিল মর্মান্তিক ঘটনাটি। বাবা-মা কাজে বেরোতেই বাড়িতে ঢুকে পড়ে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি। এরপর ঘরে বন্দি করে লাগাতার ধর্ষণ এবং নির্যাতন চালায় সে ওই কিশোরীর উপর। অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম কৃষ্ণ।

এএনআই সূত্রে খবর, 'কিশোরীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছে তাকে। ক্রমাগত রক্তক্ষরণে তার শারীরিক পরিস্থিতি জটিল হয়েছে।' দিল্লির ওয়েস্টার্ন রেঞ্জের জয়েন্ট সিপি শালিনি সিং জানিয়েছেন, 'মেয়েটির মাথায় এবং পেটে একাধিক আঘাতের চিহ্ন মিলেছে।তার বিরুদ্ধে একটি খুনের-সহ মোট চারটি মামলা দায়ের করা হয়েছে ইতিমধ্যেই।' দিল্লির মহিলা কমিশনের প্রধান স্বাতী মালিওয়াল এবং মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল গত বৃহস্পতিবারই এইমসে কিশোরীর শারীরিক পরিস্থিতির খোঁজ নিতে যান। মেয়েটির পরিবারের সঙ্গেও কথা বলেছেন তাঁরা। কিশোরীর পরিবারকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে ১০ লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে অরবিন্দ সরকার।

বাড়িতে কেউ না থাকার সুবাদে চুরি করতে ঢোকে কৃষ্ণ। এরপরই তার সামনে পড়ে যায় ওই কিশোরী। তার জেরেই এই নির্মম ঘটনার শিকার হতে হয় তাকে। পরে প্রতিবেশীরাই তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে সঞ্জয় গান্ধি ন্যাশনাল পার্কে নিয়ে যান। মেয়েটির বাবা-মাকেও খবর দেন তাঁরা। মেয়েটির ক্রমাগত রক্তক্ষরণ এবং শারিরীক পরিস্থিতি জটিল হয়ে যাওয়ার কারণে মেয়েটিকে দিল্লির এইমসে স্থানান্তরিত করা হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, মেয়েটির সারা শরীরের ধারাল অস্ত্র দিয়ে আঘাতের চিহ্ন মিলেছে।