West Bengal: করোনা যুদ্ধের মধ্যেই বিবেক কুমারকে পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য সচিবের পদ থেকে অপসারণ, নবান্নর সঙ্গে মতান্তরই কী নেপথ্য কারণ!
নবান্ন (Photo Credit: Wikimedia Commons)

নতুন দিল্লি, ১২ মে: জল্পনা শুরু হয়েছিল আগেই, আজ তার বাস্তবায়ন হয়ে গেল। পবীণ আইএএস বিবেক কুমারকে রাজ্যের স্বাস্থ্য সচিবের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল। পরিবর্তে নতুন পশ্চিমবঙ্গের নতুন স্বাস্থ্য সচিব হলেন নারায়ণ স্বরূপ নিগম। একইভাবে পরিবেশ দপ্তরের প্রিন্সিপাল সচিবের পদে বসলেন বিবেক কুমার (Vivek Kumar)। নারায়ণ স্বরূপ নিগম ছিলেন পরিবহন দপ্তরের সচিব। এমনিতে নবান্নর সঙ্গে বেশ হৃদ্যতাই ছিল বিবেক কুমারের। এই প্রবীণ আইএএস গান গাইতে পারেন। আগে রাজ্যের তথ্য ও সংস্কৃতি দপ্তরের প্রিন্সিপাল সচিবের দায়িত্বও সামলেছেন। সেই লময় বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির অনুরোধে বিবেক কুমারকে গানও গাইতে হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে এই পর্যায়ের সখ্যতা থাকার পরেও রাতারাতি কীভাবে পদের রদবদল ঘটে গেল তা বুঝতে কারও বাকি নেই। গত মাসে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের সচিবকে রীতিমতো চিঠি দিয়ে রাজ্যের করোনা আক্রান্তের আসল পরিসংখ্যান তুলে ধরেছিলেন তৎকালীন স্বাস্থ্য সচিব বিবেক কুমার। রাজ্য সরকার যে পরিসংখ্যান প্রকাশ্যে আনছিল, তার সঙ্গে স্বাস্থ্য সচিবের উল্লেখিত পরিসংখ্যানের আকাশ পাতাল তফাত। সেই চিঠি যেকোনওভাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে যেতেই বিরোধীরা সরকারের নিন্দায় মুখর হয়। পরিস্থিতি পর্যালোচনা করতে রাজ্য আসে কেন্দ্রীয় দল। এরপর প্রায় দুদিন আর করোনা সম্পর্কিত বুলেটিনই প্রকাশ করেনি নবান্ন। আরও পড়ুন- App-Cab In Kolkata: আজ থেকে শহরে চলবে অ্যাপ-ক্যাব, কোথায় মিলবে পরিষেবা?

এত বড় মতান্তরই যে বিবেক কুমারের স্বাস্থ্য সচিবের পদ থেকে অপসারণের অন্যতম কারণ তা স্পষ্ট। আগেই করোনা মোকাবিলায় নেমে খাদ্য দপ্তরের সচিবকে ছুটিতে পাঠিয়েছিল নবান্ন। রেশন তথা গণবন্টন ব্যবস্থার অনিয়ম ও প্রশাসনিক ব্যর্থতার কারণেই মনোজ আগরওয়ালকে খাদ্য সচিবের পদ থেকে সরিয়ে একপ্রকার জোর করেই ছুটিতে পাঠিয়েছিল রাজ্য। এবার স্বাস্থ্য সচিবের পদ বদল হল। এমন এক জরুরি পরিস্থিতিতে একই সঙ্গে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সচিবকে পদ থেকে সরানোর ঘটনায় রাজ্যের প্রশাসনিক দুর্বলতাই প্রকট হল বলে মনে করছে ওাকিবহাল মহল।