PM Narendra Modi's Swearing-In Ceremony: মোদির শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদানের পরিকল্পনা বাতিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের
সাংবাদিক বৈঠকে মমতা( Photo Credit-ANI)

২৯মে, ২০১৯: ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত বদল। প্রধানমন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাচ্ছেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। বুধবার দুপুরে নিজের টুইটারে মমতা টুইট করে এই সিদ্ধান্ত বদলের কথা জানিয়েছেন। সেখানে তিনি লিখেছেন, 'প্রধানমন্ত্রীর শপথগ্রহণে যোগদানের সাংবিধানিক আমন্ত্রণ পেয়ে আমি দিল্লিতে যাব বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু গত কয়েক ঘণ্টায় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানতে পারলাম রাজনৈতি হিংসায় বাংলায় নিহত ৫৬ জনের পরিবারকে ওই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এটা সম্পূর্ণ অসত্য তথ্য। পশ্চিমবঙ্গে কোনও রাজনৈতিক হত্যা হয়নি। সমস্ত হত্যার পিছনে কারণ হিসাবে রয়েছে ব্যক্তিগত শত্রুতা, পারিবারিক দ্বন্দ বা অন্য কোনও বিবাদ। এগুলির সঙ্গে রাজনীতির কোনও সম্পর্ক নেই। এমন কোনও তথ্য নথিভুক্ত নেই। গণতন্ত্র উজ্জাপনের সেরা স্থান হতে পারত এই মঞ্চ। এই মঞ্চকে রাজনৈতিক ফয়দা লোটার জন্য কোনও রাজনৈতিক দলের ব্যবহার করা উচিত নয়। মাফ করবেন। এজন্যই আমি অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করতে পারছি না। নরেন্দ্র মোদী জি, আমি দুঃখিত।'

গতকালই এই আমন্ত্রণ পত্র পেয়ে রাজনৈতিক সৌজন্যতা দেখিয়েই মমতা বলেছিলেন তিনি মোদির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যাবেন। কারণ যুক্তরাষ্ট্রীয পরিকাঠামোতে কেন্দ্রের সঙ্গেই কাজ করতে হবে রাজ্য সরকারকে। রাজ্যের মানুষের উন্নতীর স্বার্থেই এটা জরুরি ছিল বলে জানিয়েছিলেন তিনি।

কিন্তু তখনও মমতা জানতেন না মোদির পরিকল্পনার কথা। বৃহস্পতিহার সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতি ভবনে মোদীর (Narendra Modi)শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে হাজির থাকার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বাংলায় তৃণমূলের হাতে খুন হওয়া ৫৬ জন বিজেপি কর্মীর পরিজনদের। দাড়িভিট থেকে পুরুলিয়া, নিহত প্রতিটি বিজেপি কর্মীর পরিবার হাজির থাকবেন ওই অনুষ্ঠানে। বুধবার বিকেলে রাজধানী এক্সপ্রেসে তাঁদের দিল্লি নিয়ে যাবে বিজেপির বঙ্গ নেতৃত্ব।