দরিদ্র ব্রাহ্মণদের ভাতা দেবে রাজ্য,  তৃণমূল সরকারের ঘোষণার আগেই ভাইরাল পোস্টে বিতর্ক তুঙ্গে
এই সেই পোস্ট(Photo Credit: Facebook)

কলকাতা, ১২ আগস্ট: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়(CM Mamata Banerjee) কিছুই ঘোষণা করেননি, অথচ আগেভাগেই তাঁর নাম করে রাজ্যের গরীব ব্রাহ্মণদের ভাতা দেওয়ার বিষয়টির প্রচার শুরু হল জোর কদমে। কয়েকদিন আগে মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় (Rajib Banerjee) ধর্মতলায় ব্রাহ্মণদের এক সমাবেশে বলেছিলেন, ভাতার বিষয়টি যাতে দ্রুত কার্যকরী হয় তা তিনি দেখবেন। মুখ্যমন্ত্রীকেও বিষয়টি জানাবেন, এমনকী দরিদ্র ব্রাহ্মণদের বাড়ি করে দেওয়ার চেষ্টাও করবেন। দুদিন কাটতে না কাটতেই এই চেষ্টাকে সিদ্ধান্তে বদলে দিল প্রশান্ত কিশোরের (Prashant Kishore) টিম। বিষয়টি নিয়ে বিতর্কও শুরু হয়েছে। আরও পড়ুন-Monsoon rain in West Bengal: দক্ষিণবঙ্গে রাত থেকেই বাড়বে বৃষ্টি, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস

জানা গিয়েছে, ফেসবুকে ‘আমার গর্ব মমতা’ নামক একটি পেজে বলা হয়েছে– “জনদরদি জননেত্রী মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির আরও একটি নতুন পদক্ষেপ, ব্রাহ্মণ এবং পুরোহিতদের মাসিক ভাতা দেবে রাজ্য সরকার।” উল্লেখ্য, সনাতন ব্রাহ্মণ ট্রাস্ট নামের ওই সংগঠনের সদস্য রাজ্যের ১ লক্ষ ৮৩ হাজার পুরোহিত। সংগঠনের তরফ থেকে আগেই ৩৫ হাজার দরিদ্র ব্রাহ্মণের তালিকা প্রকাশ করা হয়েছিল। দাবি ছিল, এঁদের মাসিক ২,০০০ টাকা করে মাসিক ভাতা দিতে হবে। ইতিমধ্যেই কলকাতা পুরসভার তরফে শ্মশানের ব্রাহ্মণদের ভাতা দেওয়া শুরু হয়েছে। আগে ভাতা শুধুমাত্র দেওয়া হত গোরস্থানের মৌলবিদের। এবার থেকে একই ভাবে শ্মাশানের ব্রাহ্মণদেরও ভাতা দেওয়া হবে। দিন প্রতি ৩৯৮ টাকা করে ভাতা পাবেন শ্মশানের সমস্ত পুরোহিত। প্রথম পর্যায়ে মোট ২৭ জন পুরোহিতের প্রত্যেকের হাতে ৯,৫০০ টাকার চেক তুলে দিয়েছেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

এদিকে ফেসবুক পোস্টকে ঘিরে যখন বিতর্ক মাথা চাড়া দিয়েছে সেসব শুনে মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন,  “কারা কী পোস্ট করেছে জানা নেই তবে, রাজ্য সরকারের কাছে ব্রাহ্মণ পুরোহিতদের মাসিক ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা দেওয়ার দাবি করা হয়েছে। সেটা যাতে পূর্ণ হয় তার জন্য আমি যা যা দরকার করব।” তবে বিতর্ক যাই হোক না কেন, এই ভাতা চালু হলে যে তোষমের রাজনীতির অভিয়োগ তৃণমূলের গায়ে পড়েছে তা নির্মূল হবে।