COVID-19 Vaccine Dry Run: আজ থেকে রাজ্যে শুরু করোনা ভ্যাকসিনের ড্ৰাই রান, কোন জায়গাগুলি পাচ্ছে অগ্রাধিকার?
(Photo Credits: Twitter)

কলকাতা, ২ জানুয়ারি: আজ থেকে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে শুরু হচ্ছে করোনা ভ্যাকসিনের ড্ৰাই রান। রাজ্যের দত্তাবাদ, মধ্যমগ্রাম ও আমডাঙা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ২৫ জন করে স্বাস্থ্যকর্মী অংশ নেবেন এই মহড়ায়। অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়-অ্যাস্ট্রাজেনেকার করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন কোভিশিল্ড (Covishield) ব্যবহারে অনুমোদন দেয় বিশেষজ্ঞ প্যানেল।

ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া (DCGI) এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে ভারতে প্রথম করোনা ভাইরাস হিসেবে কোভিশিল্ডকেই সবার আগে ছাড়পত্র দেওয়া হয়। কীভাবে চলবে ভ্যাকসিনের ড্ৰাই রান? স্বাস্থ্যকর্মীদেরকে আগে ওয়েটিং রুমে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখান থেকে একজনকে নিয়ে যাওয়া হবে ভ্যাকসিনেশন রুমে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তাঁকে রাখা হবে অবজার্ভেশন রুমে। এই পর্বগুলিতে কড়া নজর রাখবেন স্বাস্থ্য আধিকারিকরা। ভ্যাকসিন বাজারে এলে তা কীভাবে বণ্টন করা হবে? প্রাথমিকভাবে কাদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে? ভ্যাকসিন সম্পর্কে কীভবে প্রচার করা হবে? মহড়ায় এই দিকগুলি খতিয়ে দেখা হবে। আরও পড়ুন , অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার 'কোভিশিল্ড' ভ্যাকসিন অনুমোদন দিতে সুপারিশ বিশেষজ্ঞ প্যানেলের

ভারতে, পুনের ভিত্তিক সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া কোভিশিল্ড তৈরি করছে। এর আগে, আর্জেন্টিনা এবং ব্রিটেন কোভিডশিল্ডকে জরুরি ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে এবং ভ্যাকসিন রোলআউট প্রক্রিয়া শুরু করেছে। সংস্থার সিইও আদর পুণাওয়ালা জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনের ৪ থেকে ৫ কোটি ডোজ তৈরি। জুলাইয়ের মধ্যে ৩০ কোটি ভ্যাকসিন তৈরির লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। কোভিশিল্ড প্রয়োগে ৯২-৯৫ শতাংশ সাফল্য মিলেছে। ভারত বায়োটেক এবং আইসিএমআরের তৈরি কোভ্যাকিসনের তৃতীয় পর্যায়ের পরীক্ষামূলক প্রয়োগ চলছে দেশে। তারা জরুরি ক্ষেত্রে ভ্যাকসিনে প্রয়োগের অনুমতি চেয়েছে। আমেরিকায় অনুমতি পেলেও ভারতে এখনও পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু করেনি ফাইজার।