এক চার্জেই ৬০ কিমি, ভারতে আসছে শাওমির ইলেকট্রিক সাইকেল
photo credit:Twitter

জানেন কি ফোন প্রস্তুতকারী সংস্থা শাওমির (Xiaomi)নতুন প্রোডাক্ট লঞ্চ করতে চলেছে এদেশে। প্রতিযোগী স্যামসং. নোকিয়া, ভিভোদের ভিড়ে সবাইকে অবাক করে বাজারে আনছে ইলেকট্রনিক সাইকেল। এই চিনা সংস্থাটি নিজেদের দেশে বাজারে অনেক আগেইবাই সাইকেল ও ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে এসেছে।কারণ বাজারে আসছে শাওমির আরও একটি ইলেকট্রিক সাইকেল। নাম Himo T1। শাওমিরই আরেকটি ব্র্যান্ড হিমো। তারা এখনও পর্যন্ত তিনটি ইলেকট্রিক সাইকেল বাজারে এনেছে। প্রথমটি Himo V1 এবং দ্বিতীয়টি Himo C20। দ্বিতীয়টি একটি ফোল্ডিং ই-বাইক। সর্বশেষ ভার্সানটি হল Himo T1। এর সবচেয়ে আকর্ষণীয় ফিচার হল ওয়ান-বাটন স্টার্ট। এছাড়াও মাল্টি ফাংশনাল কম্বিনেশন সুইচ, একটি ডিজিটাল ডিসপ্লেও রয়েছে এই সাইকেলে। ৯০ এমএম মাপের টায়ার-যুক্ত সাইকেলটির ডিজাইন বেশ সাদামাটা। বলা ভাল, ইউজার ফ্রেন্ডলি।

মোট তিনটি রঙে মিলবে এই সাইকেল। লাল, ধূসর এবং সাদা। এবার হল আসল প্রশ্ন। আকর্ষণীয় ফিচারযুক্ত সাইকেলটির দাম কত? এনিয়ে আনুষ্ঠানিক কোনও ঘোষণা হয়নি। তবে শোনা যাচ্ছে, ভারতীয় মুদ্রায় এর দাম পড়বে ৩০ হাজার ৭০০ টাকার আশেপাশে। আগামী ৪ জুন থেকে চিনে বিক্রি শুরু Himo T1-এর। তবে ভারতে ই-বাইক কবে আসবে বা আদৌ আসবে কিনা, তা এখনও অজানা।

যতদিন যাচ্ছে, ততই এদেশে দূষণের মাত্রা বাড়ছে। এমন পরিবেশে একটি ইলেকট্রিক সাইকেল নিয়ে বেরিয়ে পড়তে পারলে যেমন গন্তব্যে দ্রুত পৌঁছানোও যাবে, তেমনই নিঃশব্দে বায়ু দূষণের প্রতিবাদও জানানো যাবে। তাই শাওমির মতো বিশ্বস্ত ব্র্যান্ডের উপর ভরসা করে Himo T1-টি কেনার পরিকল্পনা করতেই পারেন। এটি ১৪ হাজার এমএএইচ লি-ইওন ব্যাটারিতে চলে। যার ভোল্টেজ ৪৮ভোল্ট। এতে থাকছে 14Ah/ 28Ah এনার্জি অপশন। 14Ah অপশনের সাইকেলটি একবার চার্জে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলবে। 48Ah ভার্সানটি ১২০ কিলোমিটার পর্যন্ত চালানো যাবে। এর পিছনের দিকে রয়েছে ড্রাম ব্রেক। আর সামনে হাইড্রোলিক ডিস্ক ব্রেক। সাইকেলটির ওজন ৫৩ কেজি।