Koo App (Photo Credits: Twitter)

নতুন দিল্লি, ৭ অগাস্ট: মেড ইন ইন্ডিয়া অ্যাপ্লিকেশন 'Koo' কেন্দ্রীয় সরকার আয়োজিত ডিজিটাল ইন্ডিয়া আত্মনির্ভর অ্যাপ চ্যালেঞ্জ (AatmaNirbhar App Challenge) জিতে নিল। Koo একটি সোশাল মিডিয়া অ্যাপ, যা টুইটারের বিকল্প হিসেবে ব্যবহার করা যাচ্ছে। শুক্রবার ডিজিটাল ইন্ডিয়া আত্মনির্ভর অ্যাপ চ্যালেঞ্জের বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক এই উদ্ভাবনী চ্যালেঞ্জ আয়োজন করে। ব্যবহারের জন্য উপলভ্য ও বিশ্ব-মানের- এমন আটটি বিভাগের সেরা ভারতীয় অ্যাপগুলিকে বেছে নিতেই এই চ্যালেঞ্জের লক্ষ্য ছিল। ব্যবহারের সহজতা, দৃঢ়তা, সুরক্ষা বৈশিষ্ট্য এবং স্কেলাবিলিটি সহ চারটি প্যারামিটারের ভিত্তিতে বিজয়ী হিসাবে নির্বাচিত হয়েছে Koo। পুরস্কার হিসেবে তারা নগদ ২০ লাখ টাকা পাবে।

চলতি বছরে আত্মনির্ভর ভারত গঠনের ডাক দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তারপর এই প্রথমবার এই সোশাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মটি সোশাল মিডিয়া বিভাগে পুরস্কার পেল। গত মার্চ মাসে Koo প্ল্যাটফর্মটি শুরু করেছিলেন অপ্রামেয়া রাধাকৃষ্ণ এবং মায়াঙ্ক বিদাওয়াতকা। এটি বর্তমানে হিন্দি, কান্নড়, তামিল এবং তেলেগু ভাষায় উপলভ্য। টুইটারের মতোই, 'Koo' ব্যবহারকারীদের একটি নির্দিষ্ট অক্ষরের সীমার মাধ্যমে পোস্ট করতে হবে। এখনও অবধি, ব্যবহারকারীরা ৪০০ অক্ষরের পোস্ট বা ১ মিনিটের সংক্ষিপ্ত অডিয়ো বা ভিডিয়ো ফাইল আপলাড করতে পারেন এই প্ল্যাটফর্মে। আরও পড়ুন: Facebook Employees To Work From Home Till July 2021: আগামী বছরের জুলাই পর্যন্ত কর্মীদের বাড়ি থেকে কাজ করতে বলল ফেসবুক

ব্যবহারকারীদের অন্যদের অনুসরণ এবং তাদের সরাসরি মেসেজ পাঠাতে পারেন। এছাড়া Koo-তে হাইপার লোকাল হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করার বিকল্প রয়েছে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ, শ্রী সদগুরু, অনিল কুম্বলে, জাভগাল শ্রীনাথ, আশুতোষ রানা, এবং আশীষ বিদ্যার্থী কু ব্যবহার করছেন।

Koo-র অন্যতম সহ প্রতিষ্ঠাতা মায়াঙ্ক বিদাওয়াতকা এক প্রেস বিবৃতিতে বলেছেন, “আত্মনির্ভর অ্যাপ চ্যালেঞ্জে ৯৪০ টি এন্ট্রি থেকে বিজয়ী তালিকার অংশ হয়ে আমরা গর্বিত। উন্নত ভারতের জন্য আমাদের সরকার প্রযুক্তি উদ্ভাবনে যে পদক্ষেপ নিচ্ছে তার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। এটি আমাদের দল এবং আমাদের অবদানকারীদের জন্য একটি গর্বের মুহূর্ত।



আপনি এটাও পছন্দ করতে পারেন