COVID-19 Cases In West Bengal: লাখের কোটা ছাড়িয়ে গেল পশ্চিমবঙ্গের করোনাভাইরাস সংক্রমণ, মৃত্যু মিছিলে শামিল ২,৯৩১ জন
করোনার সংক্রমণ (Photo Credits: IANS)

কলকাতা, ১২ আগস্ট: সংক্রমণের নিরিখে আমেরিকা ও ব্রাজিলের পরে থাকলেও একদিনে নতুন রোগীর সংখ্যায় সবাইকে ছাড়িয়ে গেল ভারত। বুধবার পর্যন্ত দেশে মোট করোনা আক্রান্ত ২৩ লক্ষ ২৯ হাজার ৬৩৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টাতেই নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬০ হাজার ৯৬৩ জন। এদিকে পশ্চিমঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা পেরিয়ে গেল ১ লক্ষ! মঙ্গলবার সন্ধের বুলেটিন বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে আক্রান্ত ২৯৩১ জন (Coronavirus Cases In West Bengal)। করোনা সংক্রমণ নিয়ে একদিনে মারা গেছেন ৪৯ জন। এর ফলে রাজ্যে সংক্রমণ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যাও বেড়ে দাঁড়াল ২১৪৯। এঁদের মধ্যে অবশ্য ১৯০৮ জনের শরীরে কো মর্বিডিটি ছিল বলে জানা গিয়েছে। বুলেটিন বলছে, এদিন কোভিড থেকে সুস্থও হয়ে উঠেছেন ৩০৬৭ জন।

এর ফলে রাজ্যে মোট কোভিডজয়ীর সংখ্যা দাঁড়াল ৭৩ হাজার ৩৯৫। এই মুহূর্তে করোনা অ্যাকটিভ রয়েছে ২৫ হাজার ৮৪৬ জনের দেহে। ডিসচার্জ রেট বেড়ে দাঁড়াল ৭২.৩৯ শতাংশ। মঙ্গলবার পর্যন্ত রাজ্যের ১১ লক্ষ ৫৯ হাজার ২১১ জনের করোনা টেস্ট হল। সবমিলিয়ে পশ্চিমবঙ্গে এখন মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ১ হাজার ৩৯০ জন। রাজ্যের মধ্যে কলকাতা নিয়ে রীতিমতো আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। এখনও পর্যন্ত কলকাতায় ২৯ হাজার ১৮৫ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে ৭১১ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২১ হাজার ৫৯০জন। ৬ হাজার ৬১৫ জনের এখনও চিকিৎসা চলছে। শুধু কলকাতাতেই করোনায় প্রাণ গিয়েছে ৯৮০ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় শুধু কলকাতাতেই মারা গিয়েছেন ১৮ জন। এর পরেই রয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। এখানে মোট করোনা রোগীর সংখ্যা ২১ হাজার ৬৯০ জন। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৪৯৯ জন। আরও পড়ুন-Coronavirus Cases In India: ১ দিনে আক্রান্ত ৬০ হাজার ৯৬৩ জন, ভারতে কোভিড রোগীর সংখ্যা এখন ২৩ লাখেরও বেশি

রাজ্যে হু হু করে বাড়ছে সংক্রমণ। ৬১টি ল্যাবে টেস্ট হওয়ায় প্রতি ১০ লক্ষ জনসংখ্যা অনুপাতে সংখ্যাটা দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৮৮০ জন। যদিও এর মধ্যে পজিটিভ রিপোর্টের হার উল্লেখযোগ্য হারে বাড়ছে। সেই হার এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮.৭৫ শতাংশ। পশ্চিমবঙ্গে কিছু এলাকায় ইতোমধ্যে গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হয়েছে বলে সরকারের তরফে আগেই স্পষ্ট করে বলা হয়েছে। ফলে করোনা টেস্টে পজিটিভ রিপোর্ট বৃদ্ধি পাওয়া স্বাভাবিক বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।