Kolkata: বিস্তর অভিযোগ, পরিস্থিতি পরিদর্শনে রেশন দোকানে হাজির মুখ্যমন্ত্রী
রেশন দোকানে হাজির মুখ্যমন্ত্রী (Photo: Facebook)

কলকাতা, ১৭ এপ্রিল: রেশন (Ration) ব্যবস্থা নিয়ে অভিযোগের জেরে সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে ভবানীপুরে (Bhawanipur) রেশন দোকানে হাজির মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (CM Mamata Banerjee)। আজ নবান্নে (Nabanna) বৈঠকের পর তিনি হাজির হন সেখানে। কথা বলেন রেশনের দোকানদারের সঙ্গে। ৬ মাস বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেইমতো সকলে ৫ কেজি করে চাল পাচ্ছেন কি না সে বিষয়ে খোঁজ খবর নেন। এরপর একে একে অন্যান্য রেশন দোকানগুলোতেও হাজির হন তিনি। এছাড়া স্থানীয় বাসিন্দদের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করেন।

রেশনে চাল-গম বিলি নিয়ে বিভিন্ন জেলা থেকে বেনিয়মের খবর আসায় গতকাল খাদ্য সচিব মনোজ আগরওয়ালকে সরিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তাঁর জায়গায় নতুন খাদ্য সচিব হচ্ছেন পারভেজ আহমেদ সিদ্দিকী। নবান্নে প্রথমে মন্ত্রিসভার বৈঠকে রেশন নিয়ে বিশৃঙ্খলার ঘটনায় ক্ষোভ উগরে দেন মুখ্যমন্ত্রী। খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে ধমক দিতেও দেখা যায় তাঁকে। আরও পড়ুন: Coronavirus In West Bengal: রেড জোনে থাকছে কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা, রাজ্যে করোনা আক্রান্ত ১৬২

আজ নবান্ন সভাঘরে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে সমস্ত জেলাশাসক, পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। প্রতিটি জেলা ধরে ধরে প্রশ্ন করেন জেলাশাসকদের। জেলাগুলিতে ভিড় নিয়ন্ত্রণে কী ব্যবস্থা ও পরিস্থিতি নিয়ে খোঁজ নেন মুখ্যমন্ত্রী। পরিস্থিতি সামলাতে প্রয়োজনে 'কড়া হতে' নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী এ দিন আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, "হাওড়ার কয়েকটি এলাকা রেড জোন, কলকাতা কয়েকটি ওয়ার্ডও রেড জোন। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে এবার গোষ্ঠী সংক্রমণ শুরু হবে৷" উত্তর ২৪ পরগনায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে পুলিশ প্রশাসনকে বিশেষ নজর দিতে বলেছেন তিনি। ক্ষেভপ্রকাশ করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "ডেঙ্গিও উত্তর ২৪ পরগনা থেকে শুরু হয়৷ করোনার ক্ষেত্রেও তাই হচ্ছে৷" বৈঠকে ১৪ দিনের মধ্যে হাওড়া এবং উত্তর ২৪ পরগনা জেলাকে রেড থেকে অরেঞ্জ জোনে নিয়ে আসার নির্দেশ দেন প্রশাসনিক কর্তাদের। পাশাপাশি যে জেলাগুলি অরেঞ্জ জোনের আওতায় আছে, সেগুলিকে গ্রিন জোনে নিয়ে আসার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি৷