মৎসজীবীদের জালে নদী থেকে মিলল নিখোঁজ বিজেপি নেতার দেহ
Image Used for Representational Purpose Only | (Photo Credits: File Image)

কলকাতা, ১৮ অগাস্ট: তিন দিন ধরে নিখোঁজ ছিলেন। পরিবার, বন্ধু- তার পার্টির কর্মীরা খোঁজ খোঁজ করছিলেন। কিন্তু কিছুতেই খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। অবশেষে রবিবার ঢোলা থানার কালিনাগিনি নদী থেকে উদ্ধার হল বিজেপি কর্মী-নেতা কাদের মোল্লার মৃতদেহ। যে কাদের মোল্লা এলাকায় কার্যত একা হাতে বিজেপি-র সংগঠন বাড়ানোর চেষ্টা করেন। খুনের ঘটনায় কাদের মোল্লার পরিবার স্থানীয় এক তৃণমূল নেতার দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছে ।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার ঢোলাহাটের বিবেকা গ্রামপঞ্চায়েতের কোয়াবেড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা কাদের মোল্লার তিন দিন ধরে কোনও খোঁজ মিলছিল না। নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার পরেই ঢোলাহাট থানায় তাঁর নামে নিখোঁজ ডায়েরি করে ওই বিজেপি নেতার পরিবার৷। শেষ অবধি কালনাগিনি নদী থেকে উদ্ধার হল কাদের মোল্লার দেহ। দেহ একেবারে ক্ষতবিক্ষত, পচন ধরতেও শুরু করেছে বলে খবর। ৬২ বছরের বিজেপি কর্মী কাদের মোল্লা বিজেপি-র অঞ্চল প্রধান ছিলেন বলে দাবি। আরও পড়ুন-বীরভূমের লাভপুরে বোমার আঘাতে খুন বিজেপি কর্মী, উত্তেজনা মনিরুল ইসলামের গড়ে

অভিযোগ, রাজনৈতিক কারণে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে কাদের মোল্লাকে। পরিবারের অভিযোগ, এলাকায় খুব দক্ষ সংগঠক হিসেবে পরিচিত ছিলেন কাদের মোল্লা। তাঁর হাত ধরে ওই এলাকায় বিজেপি ক্রমশই শক্তিশালী হয়ে উঠছিল। অভিযোগ একেবারে উড়িয়ে দিয়েছে তৃণমূল। ঘটনার তদন্ত নেমে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে পুলিশ।