Uttar Pradesh: যোগী রাজ্যের নদী থেকে ৪০ বছরের মৃত মহিলার শাড়িতে বাঁধা দুই মেয়ের দেহ উদ্ধার
প্রতীকী ছবি (Photo Credits: ANI)

গোরক্ষপুর, ২৫ মে: ৪০ বছরের এক মহিলা ও তাঁর দুই নাবালিকা মেয়ের দেহ উদ্ধার হল উত্তরপ্রদেশের (Uttar Pradesh) রোহিনী নদী (Rohini River) থেকে। মায়ের শাড়িতে বাঁধা ছিল ১৩ বছরের শিবানী (Shivani)ও ৯ বছরের অর্পিতার (Arpita) দেহ। ৪০ বছরের মৃত মায়ের নাম মায়া। স্থানীয় পুলিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তিন মহিলার দেহে কোনওরকম আঘাতের চিহ্ন নেই। আরও পড়ুন: Rajasthan: ধর্ষণ করে মেয়েকে ফেলা হয়েছে কুয়োয়! পরদিন অভিযোগ বদল বাবার

পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, মায়া (Maya) তার দুই মেয়েকে শাড়ির আঁচলে বেঁধে গঙ্গায় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পুলিশ জানায় সোমবার সকালে পিপিগঞ্জ এলাকার জঙ্গল কাউদিয়ার সামনে নদীতে তিনটি দেহ ভাসতে দেখে স্থানীয় মানুষ খবর দেয়। উদ্ধার হওয়া দেহগুলি ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তদন্ত শুরু হয়েছে।

পুলিশ জানায়, মায়ার সঙ্গে তাঁর স্বামী শৈলেশ কানুজিয়ার বড় ঝগড়া হয়। এরপরই দুই মেয়েকে নিয়ে ঘর ছাড়েন মায়া। স্বামীকে বলেও যান তিনি আর ঘরে ফিরবেন না। শৈলেশ পুলিশের কাছে জানিয়েওছিলেন তাঁর স্ত্রী মেয়েদের নিয়ে ঘর ছেড়েছে। সোমবার সকালে শৈলেশ আমেদবাদে চলে যান তাঁর কাঠের ব্যবসার কাজে। শৈলেশকে সফরের মাঝপথেই পুলিশ জানায়, তার স্ত্রী ও দুই মেয়ের দেহ উদ্ধার হয়েছে নদী থেকে। প্রতিবেশীরা জানায়, মায়ার সঙ্গে অন্য কোনও পুরুষের সম্পর্ক আছে সন্দেহে শৈলেশ মাঝেমাঝেই তার স্ত্রী-র সঙ্গে ঝগড়া করত।