Afghanistan Crisis: হত্যা করেনি তালিবান, মারধর করেছে, জানালেন খোদ টোলো নিউজের সাংবাদিকই
জিয়ার ইয়াদ খান (Photo: Twitter)

কাবুল, ২৬ অগাস্ট: আফগানিস্তানের খবরের চ্যানেল টোলো নিউজ (Tolo News)-র এক সাংবাদিককে হত্যা করেছে তালিবান (Taliban)। আজ এই খবর ছড়িয়ে পড়ে সোশাল মিডিয়ায়। যদিও যে সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়, সেই জিয়ার ইয়াদ খান (Ziar Yaad Khan) নিজেই সেই দাবি উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি টুইটে জানিয়েছেন, তাঁকে হত্যা সম্পর্কিত খবর একেবারেই ভুল। তাঁকে হত্যা করা হয়নি। মারধর করেছে তালিবানরা।

টুইটে তিনি লেখেন, "রিপোর্টিং করার সময় কাবুলের নিউ সিটিতে আমাকে তালিবানরা মারধর করেছিল। ক্যামেরা, প্রযুক্তিগত সরঞ্জাম এবং আমার ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনও ছিনতাই করা হয়েছে। কিছু লোক আমার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে দিয়েছে। যা মিথ্যা। তালিবানরা একটি সাঁজোয়া গাড়ি থেকে বেরিয়ে আসে ও আমাকে বন্দুক দিয়ে মারে।"

জিয়ার লিখেছেন, "আমি এখনও জানি না কেন তারা এমন আচরণ করেছে এবং হঠাৎই আমাকে আক্রমণ করেছিল। বিষয়টি তালিবান নেতাদের জানানো হয়েছে। তবে, অপরাধীদের এখনও গ্রেফতার করা হয়নি। যা মত প্রকাশের স্বাধীনতার জন্য মারাত্মক হুমকি।"

আসলে ইংরেজিতে ভুল অনুবাদের কারণেই এই খবর ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্বে। পরে বিষয়টি নজরে পড়তেই টোলো নিউজ ইংরেজিতে টুইট করে। তারা আরও দাবি করেছে যে সাংবাদিক জিয়ার ইয়াদ খান ও তাঁর ক্যামেরাম্যান বেইস মাজিদিকে বুধবার সকালে কাবুলের হাজি ইয়াকুব স্কয়্যারে মারধর করা হয়। যার কারণ অস্পষ্ট। মারধরের ঘটনার তদন্তে করবে বলে জানিয়েছে তালিবান।