Mamata Banerjee On Disinvestment: 'এই দেশ আমাদের সবার', বিলগ্নিকরণ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে সর্বদল সভা ডাকার পরামর্শ মমতা ব্যানার্জির
মমতা ব্যানার্জি ও নরেন্দ্র মোদি ও (Photo Credits: PTI)

কলকাতা, ২১ নভেম্বর: সরকারি সংস্থাগুলির বিলগ্নিকরণে (Disinvestment) গতকাল বড় পদক্ষেপ নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার । BPCL (ভারত পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশন লিমিটেড), SCI (শিপিং কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া) সহ মোট পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত কম্পানির শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়েছে। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন (Nirmala Sitharaman) এই সিদ্ধান্তের কথা জানান। আজ এই সিদ্ধান্তের সরাসরি সমালোচনা করলেও কেন্দ্রীয় সরকারকে খোঁচা দিলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি (Mamata Banerjee)। আজ তিনি বলেন, "অর্থনৈতিক সংকট আরও গভীর হওয়ায় বিলগ্নিকরণ সমাধান নয়। আমি মনে করি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলা উচিত। যদি প্রয়োজন হয় তবে তিনি সমস্ত রাজনৈতিক দলের সভা ডাকুন। কারণ এই দেশ আমাদের সবার।"

বুধবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে ভারত পেট্রোলিয়াম (বিপিসিএল), কনটেনার কর্পোরেশন (কনকর), শিপিং কর্পোরেশন, নিপকো ও টিহরি জল বিদ্যুৎ উন্নয়ন নিগম (টিএইচডিসিএল), এই পাঁচটি সংস্থার শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত হয়েছে। তিনটি সংস্থার নিয়ন্ত্রণ আর সরকারের হাতে থাকবে না। বাকি দু’টির ক্ষেত্রেও নিয়ন্ত্রণ তুলে দেওয়া হবে অন্য একটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার হাতে। মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন জানান, বিপিসিএল, শিপিং কর্পোরেশনের যত শেয়ার সরকারের হাতে রয়েছে, তার সবটাই বেসরকারি সংস্থাকে বেচে দেওয়া হবে। তবে বিপিসিএল-এর হাতে থাকা অসমের নুমালিগড় রিফাইনারির বেসরকারিকরণ হবে না। সেটি সরকার বা অন্য কোনও তেল সংস্থা কিনে নেবে। আরও পড়ুন: Relief To Telecom Sector: টেলিকমে আপাতত স্বস্তি! স্পেকট্রামে ঋণ শোধের সময়সীমা বাড়াল কেন্দ্র

ভারত পেট্রোলিয়ামের ৫৩.২৯ শতাংশ শেয়ার রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। সেই শেয়ারের পুরোটাই সরকার বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কম্পানির পরিচালন ক্ষমতাও সরকার আর নিজের হাতে রাখবে না। ক্যাবিনেট কমিটি অন ইকনমিক অ্যাফেয়ার্স BPCL-র শেয়ার বিক্রি ও পরিচালন ক্ষমতা ছাড়ার সরকারি সিদ্ধান্তে শিলমোহর দিয়েছে। SCI-এর ৬৩.৭৫ শতাংশ শেয়ার রয়েছে সরকারের হাতে। তার মধ্যে ৫৩.৭৫ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করা হবে। অন্যদিকে কন্টেনার কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার ৫৪.৮ শতাংশ শেয়ার আছে সরকারের হাতে। এর মধ্যে ৩০.৯ শতাংশ শেয়ার বিক্রি করা হবে। এছাড়া THDC ইন্ডিয়া এবং NEEPCO (নর্থ ইস্টার্ন ইলেকট্রিক পাওয়ার কর্পোরেশন লিমিটেড -এর সরকারের হাতে থাকা সমস্ত শেয়ার বিক্রির সিদ্ধান্ত হয়েছে। ইন্ডিয়ান অয়েল কর্পোরেশনের শেয়ার বিক্রিরও সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সরকার প্রত্যক্ষভাবে নিজের হাতে IOC-র ৫১.৫ শতাংশ শেয়ার রেখেছে। আরও ২৫.৯ শতাংশ শেয়ার সরকার LICI-র মাধ্যমে নিজের হাতে রেখেছে। এর মধ্যে ৫১ শতাংশের কম শেয়ার নিজের হাতে রেখে বাকিটা বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তবে কম্পানির পরিচালন ক্ষমতা সরকারের হাতেই থাকবে।