COVID-19: বাড়ছে থাবা, তেলাঙ্গানা জুড়ে করোনায় আক্রান্ত ৩৭ হাজার শিশু, কিশোর

হায়দরাবাদ, ৩ জুন: মহারাষ্ট্রের পর এবার তেলাঙ্গানা (Telangana)। করোনার (Corona) দ্বিতীয় ঢেউয়ে আক্রান্ত একের পর এক শিশু, কিশোর। ২০২১ সালের মার্চ থেকে মে মাস পর্যন্ত তেলাঙ্গানা জুড়ে ৩৭ হাজার শিশু, কিশোর আক্রান্ত হয়েছে। যাদের প্রত্যেকের বয়স ১৮-র নীচে। সম্প্রতি দক্ষিণের ওই রাজ্য থেকে উঠে এসেছে এমনই এক ভয়াবহ রিপোর্ট। যা দেখে শিউরে উঠেছেন অনেকেই।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের (Corona Second Wave) জেরে তেলাঙ্গানা জুড়ে যেভাবে শিশু এবং কিশোররা আক্রান্ত হতে শুরু করেছে, তাতে কপালে ভাঁজ পড়ছে সে রাজ্যের সরকারের। ফলে শিশু এবং কিশোরদের করোনার চিকিৎসার জন্য ৫ হাজার বেড বাড়ানো হয়েছে তেলাঙ্গানার বিভিন্ন এলাকায়। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের জেরে শিশু (Children), কিশোররা যেভাবে আক্রান্ত হচ্ছে, তাতে তৃতীয় ঢেউয়ে এর প্রভাব কতটা পড়বে, তা নিয়েও চিন্তায় তেলাঙ্গানা সরকার।

আরও পড়ুন: Kareena Kapoor Khan: সুইমিং পুলের পাশে স্বল্পবাসে করিনা, ভাইরাল ছবি

জানা যাচ্ছে, করোনার প্রথম ঢেউয়ে তেলাঙ্গানায় ১৯,৮২৪ জন শিশু আক্রান্ত হয়। গত বছর ১৫ অগাস্ট থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত তেলাঙ্গানায় ১৯,৮২৪ জন শিশু আক্রান্ত হয় কোভিডে। প্রথম ঢেউয়ের তুলনায় দ্বিতীয় ঢেউয়ে সেই সংখ্যাটা লাফ দিয়ে বেড়ে  ১৯,৮২৪ জন শিশুর আক্রান্তের খবর পাওয়া যায়।

পাশাপাশি করোনার সঙ্গে রয়েছে মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোমের আশঙ্কা। যা করোনা থেকে সেরে ওঠার পর শিশুদের মধ্যে দেখা যাচ্ছে প্রকটভাবে। ইতিমধ্যেই তেলাঙ্গানায় ৯,৮৫৮ জন মাল্টি সিস্টেম ইনফ্লেমেটরি সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়েছে। ফলে করোনার পাশাপাশি শিশুদের এই রোগ নিয়েও চিকিৎসকরা চিন্তায় রয়েছেন।

তেলাঙ্গানার স্বাস্থ্য আধিকারিক কে রমেশ রেড্ডি জানান, গোটা রাজ্য জুড়ে করোনার সঙ্গে লড়াই জারি। নিলোফার এবং গান্ধী হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। ওই দুই হাসপাতালেই বাড়ানো হয়েছে ১৫০০ শয্যা। তেলাঙ্গানার মুখ্যসচিব সোমেশ কুমার রাজ্যের চিকিৎসকদের সঙ্গে একের পর এক বৈঠক করছেন। যেভাবেই হোক, করোনার হাত থেকে শিশুদের রক্ষা করতে নেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন পরিকল্পনা।