Budget Session 2021: প্রজাতন্ত্র দিবসে লালকেল্লায় কৃষকদের আচরণ দুঃখজনক: রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ
প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দের ভাষণ (Photo: ANI)

নতুন দিল্লি, ২৯ জানুয়ারি: সংসদে শুরু হল বাজেট অধিবেশন। এই অধিবেশন শুরুতেই প্রেসিডেন্ট রামনাথ কোবিন্দের ভাষণ দেন। যদিও সেই ভাষণ বয়কট করেছে কংগ্রেস, তৃমমূল সহ ১৯টি বিরোধী দল। ১ ফেব্রুয়ারি সাধারণ বাজেট পেশ করবেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

এক নজরে রাষ্ট্রপতির ভাষণ:

  • করোনা মহামারীর সময়ে সংসদের এই অধিবেশন খুবই তাৎপর্যপূর্ণ
  • করোনার বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়ছে দেশ
  • করোনার সংক্রমণ কমছে। সরকার অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে।
  • রেকর্ড আর্থিক প্যাকেজের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হয়েছে যাতে কোনও গরিব অভুক্ত না থাকে।
  • সরকার গরিব কল্যাণ অভিযান চালিয়েছে সরকার। ৩১ হাজার কোটি টাকা গরিব মহিলাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে দেওয়া হয়েছে।
  • করোনা মহামারী শিখিয়েছে আত্মনির্ভর ভারত কেন গুরুত্বপূর্ণ।
  • ভারত বিশ্বের সবচেয়ে বড় করোনা টিকাকরণ চালাচ্ছে। দুটি ভ্যাকসিনই দেশে তৈরি হয়েছে। টিকাকরণ অভিযান সফল হয়েছে। পূরণ হচ্ছে আত্মনির্ভর ভারতের স্বপ্ন।
  • গ্রামীণ সড়ক, রাস্তা নির্মাণের কাজ করেছে সরকার।
  • উন্নত মানের ইন্টারনেট পরিষেবা পৌঁছানোর কাজ করছে সরকার।
  • কৃষি আইনের ফলে কৃষকদের কোনও ক্ষতি হবে না।
  • ১০ কোটি কৃষকের লাভ হবে।
  • কৃষি খরচের দেড়গুণ এমএসপি দেওয়া হচ্ছে।
  • প্রজাতন্ত্র দিবসে লালকেল্লায় কৃষকদের আচরণ দুঃখজনক। জাতীয় পতাকার অবমাননা করা হয়েছে।
  • সরকার সব আন্দোলনকে সম্মান করে। যে সংবিধান আমাদের মত প্রকাশের স্বাধীনতা দেয়, একই সংবিধানটি আমাদের শিখিয়ে দেয় যে আইন ও বিধি গুরুত্বের সঙ্গে অনুসরণ করতে হবে।
  • ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরাও আমার সরকারের অগ্রাধিকার। এ জাতীয় কৃষকদের সহায়তা করতে প্রধানমন্ত্রী-কিষাণ সম্মান নিধির অধীনে প্রায় ১ লাখ ১৩ হাজার কোটি টাকা সরাসরি তাঁদের অ্যাকাউন্টে দেওয়া হয়েছে।
  • এই বিষয়টি স্পষ্ট করে বলতে চাই যে তিনটি কৃষি আইন গঠনের আগে যে অধিকার ও সুযোগ-সুবিধাগুলি ছিল তা হ্রাস করা হয়নি, বাস্তবে এই নতুন কৃষি সংস্কারের মাধ্যমে সরকার কৃষকদের জন্য নতুন সুযোগ-সুবিধা ও অধিকার দিয়েছে।
  • সুপ্রিম কোর্ট তিনটি কৃষি আইন লাগুতে স্থগিতাদেশ দিয়েছে। শীর্ষ আদালতের সিদ্ধান্ত যাই হোক না কেন সরকার তাকে সম্মান করবে।
  • আত্মনির্ভর ভারতে বিশেষ ভূমিকা আছে মহিলাদের।
  • মহিলাদের স্বাস্থ্যের উন্নতিকরণে কাজ করছে সরকার।
  • ভারতীয় বায়ুসেনা, সেনায় মহিলাদের গুরুত্বপ্রদানের মত কাজ এই সরকার করেছে।
  • JEE NET পরীক্ষা পরিচালন করে পড়ুয়াদের এক বছর নষ্ট হওয়ার হাত থেকে বাঁচিয়েছে।
  •   ১টাকায় স্যানিটারি ন্যপকিন এনেছে সরকার।
  • স্ব-রোজগারে  যোজনায় জোর দিয়েছে সরকার।  গ্রামেও পৌঁছে যাবে অপটিকাল ফাইবার। সেদিকেই এগোচ্ছে ভারত সরকার।
  • গত সরকার একটি নতুন সংসদ ভবন নির্মাণের জন্য প্রচেষ্টা করেছিল। এটি একটি আনন্দদায়ক ঘটনা যে স্বাধীনতার ৭৫ তম বছরের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সময়ে দে তা নির্মাণ শুরু করেছে। ভবনটি সাংসদদের দায়িত্ব পালনে আরও বেশি সুবিধা প্রদান করবে।
  • দেশে ইউপিআই ব্যবস্থার ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে।
  • চিকিৎসা পরিষেবা ক্ষেত্রে ডিজিটাল পরিষেবা দেওয়ার কাজ শুরু করেছে সরকার।
  • উত্তর-পূর্বে চরমপন্থা তার শেষের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, হিংসার ঘটনা কমছে। যে যুবসমাজ পথভ্রষ্ট হয়েছিল, তাঁরা ফিরে আসছেন উন্নয়ন ও দেশ গঠনের মূল স্রোতে।
  • ২০২০ সালের জুন মাসে গালওয়ান উপত্যকায় ২০ জন জওয়ান সর্বোচ্চ ত্যাগ দিয়েছেন। প্রতিটি নাগরিক এই শহিদের প্রতি কৃতজ্ঞ। আমার সরকার দেশের স্বার্থ রক্ষায় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ভারতের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য এলএসি তে অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।